দুই মাস পর জামিন পান বুশরা

জাতীয়

 

ডেস্ক রিপোর্ট ঃ

বুয়েট ছাত্র ফারদিন নূর পরশ হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার আয়াতুল্লাহ বুশরা কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কারাগারের প্রধান সুপার ওবায়দুর রহমান।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) দুপুর ২:১২ মিনিটে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগার থেকে বুশরার বাবা মো. মঞ্জুরুল বুশরাকে গ্রহণ করেন।

এর আগে রোববার (৮ জানুয়ারি) বুশরাকে জামিন দেন আদালত। ঢাকার ৭ নম্বর অতিরিক্ত মহানগর দায়রার বিচারক তেহসিন ইফতেখারি জামিনে মুক্তির আদেশ দেন।

গত ৪ নভেম্বর বুয়েট ক্যাম্পাসে যাওয়ার কথা বলে ঢাকার ডেমরার কোনাপাড়ার বাসা থেকে বের হন ফারদিন। সেদিন তিনি নিখোঁজ হন। ওই দিন ফারদিনের সঙ্গে ছিলেন আয়াতুল্লাহ। নিখোঁজ হওয়ার তিন দিন পর গত ৭ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ফারদিনের লাশ উদ্ধার করে নৌ পুলিশ। এ ঘটনায় ফারদিনের বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলায় আয়াতুল্লাহ বুশরাকে অভিযুক্ত করা হয়। গত ১০ নভেম্বর সকালে রাজধানীর রামপুরা পাড়ার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর রিমান্ড শেষে কারাগারে ছিলেন বুশরা।

ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক জানান, বুয়েটের ছাত্র ফারদিন নূর খুনের শিকার। এরপর হত্যাকাণ্ড নিয়ে মামলার তদন্ত এগোলেও সম্প্রতি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তদন্ত সংস্থা ফারদিন নূর আত্মহত্যা করেছে বলে জানিয়েছে। ঘটনার তদন্তে থাকা র‌্যাবের পক্ষ থেকেও একই কথা বলা হয়েছে। দাবির পক্ষে যুক্তি হিসেবে তারা গভীর রাতে ডেমরার সুলতানা কামাল সেতু থেকে এক ব্যক্তির নদীতে ঝাঁপ দেওয়ার ভিডিও জমা দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *