ইন্ডিয়াসফটে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করলো বেসিস

ইন্ডিয়াসফটে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করলো বেসিস

তথ্য প্রযুক্তি

বাংলাদেশ কন্ঠ প্রতিবেদক :
তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য ২৭-২৯ মার্চ, ২০২৩ ভারতের নয়াদিল্লির প্রগতি ময়দানে অনুষ্ঠিত হলো ইন্ডিয়াসফট। ৮৫ টি দেশের নামি-দামি তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান তাদের সেবাসমূহ তুলে ধরে এই মেলায় যেখানে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর প্রতিনিধিত্বে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট একটি প্রতিনিধি দল মেলায় অংশগ্রহণ করে।
ইন্ডিয়াসফটে অংশগ্রহণকারী স্টল গুলোতে বেসিসের ক্যাটালগ বিতরণ, বেসিস সদস্যদের সেবা সম্পর্কে জানানো এবং বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ব্র্যান্ডিং করা হয়েছে। মেলায় অংশগ্রহণকারি বেসিস সদস্যরা বিভিন্ন দেশের সাথে ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য বিভিন্ন সম্মেলন, সেমিনার, কর্মশালা এবং বিটুবি মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করে। ৮৫টি দেশের প্রতিনিধিদের সামনে প্রথমবারের মতো ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ এবং বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতা তুলে ধরা হয়েছে।
বেসিসের সদস্য প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অংশগ্রহণ করেন ইওয়াই হোস্ট লিমিটেড, এম এস স্টুডিও, ডাটাসফট সিস্টেমস বাংলাদেশ লিমিটেড, ডাটাসফট, কলপলক লিমিটেড, ইনুমেন্ট সলিউশন লিমিটেড, বিজনেস গ্লোবালাইজার, রাইজ আইটি সলিউশন লিমিটেড, রিফর্মডটেক, গ্রাহো লিমিটেড, দেওয়ান আইসিটি, ডিজিটাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন লিমিটেড, বাংলাফায়ার সলিউশন লিমিটেড, সিসটেক ডিজিটাল লিমিটেড, টেকলজিশিয়ানস সলিউশন, মিডিয়াসফট ডেটা সিস্টেম লিমিটেড, মিডিয়া সফট, আইটিক্ল্যান বিডি, ওপেন কমিউনিকেশন লিমিটেড, পাইসটেক লিমিটেড, লিমদা হোস্ট, ডায়াল টু সাপোর্ট, হিমালয়ান সফট, ওপেন কমিউনিকেশন, গ্লিঅনলাইন, স্পেট ইনিশিয়েটিভ লিমিটেড, দোকান, সফটল্যাবনি, সফ্ট রেশিও, ডকাসটালিয়া লিমিটেড, মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট অ্যান্ড কমিউনিকেশনস লিমিটেড (এমসিসি) এবং অ্যাডফিনিক্স লিমিটেড। বেসিসের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন বেসিসের ওয়েব সার্ভিস স্ট্যান্ডিং কমিটির কো-চেয়ার এবং ইওয়াইহোস্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইমরান হোসেন। তিনি বলেন, এই মেলাতে সর্বমোট ৮৫টি দেশের কোম্পানি অংশগ্রহণ করে এবং তাদের সেবাসমূহ প্রদর্শন করে। যার ফলে বর্তমান বৈশ্বিক ব্যবসায়িক প্রবণতা সম্পর্কে অংশগ্রহণকারি বেসিস সদস্যদের ধারণা আরো স্পষ্ট হয়েছে। বেসিস সভাপতি রাসেল টি আহমেদ বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিদেশে ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য আমরা বিভিন্ন দেশের সাথে দ্বিপাক্ষিক আলোচনাসহ বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করি। তারই ধারাবাহিকতায় ইন্ডিয়াসফটে আমাদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে আইসিটি সেক্টরে ব্যবসায়িক সহযোগিতা ও ক্ষেত্র তৈরি হবে বলে আমি মনে করি। এছাড়াও, এই মেলায় অংশগ্রহণের ফলে বিভিন্ন দেশের বিনিয়োগকারি ও তথ্যপ্রযুক্তিবিদদের মধ্যে মেলবন্ধন তৈরি হবে বলে আশা করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *